শিক্ষক ফোন কেড়ে নেওয়ায় অভিমানে স্কুল ছাত্রের আত্মহত্যা

প্রকাশিত: ১:১৫ পূর্বাহ্ণ, মে ১১, ২০২২

রিয়াজ হোসেন (লিটু), নাটোর।।
বিদ্যালয়ের শ্রেণিকক্ষে মোবাইল ফোন নিয়ে ঢোকায় শিক্ষক তা কেড়ে নিয়ে নিজের কাছে রাখে। পরে অভিমানে ওই ছাত্র গলায় রশি লাগিয়ে আত্মহত্যা করে। নিহত ও ছাত্রের নাম অরণ্য কোড়াইয়া (১৬)। সে নাটোরের বড়াইগ্রামের জোয়াড়ি ভবানীপুর খ্রিস্টান পাড়ার রঞ্জিত কোড়াইয়ার ছেলে ও রামাগাড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র।

সোমবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার পর কোন এক সময় সে নিজ ঘরে আত্মহত্যা করে। জোয়াড়ি ইউপি চেয়ারম্যান চাঁদ মাহামুদ জানান, মোবাইল ফোন নিয়ে শিক্ষার্থীদের বিদ্যালয়ে আসা নিষেধ। রবিবার ইংরেজী ক্লাস চলাকালীণ হঠাৎ অরণ্য কোড়াইয়ার

মোবাইল ফোন বেজে উঠলে ক্লাস শিক্ষক ইমরান হোসেন তা কেড়ে নেয় এবং জানিয়ে দেয় অভিভাবককে সঙ্গে নিয়ে আসলে মোবাইল ফোন ফেরত দেওয়া হবে। বাড়িতে ফিরে অরণ্য তার মাকে বিষয়টি জানায়। রাতের খাবার শেষ হওয়ার পর রাত সাড়ে ১২টার দিকে অরণ্য নিজ শোবার ঘরে ঘুমাতে যায়। সকালে প্রাইভেট পড়ার জন্য মা ডাকতে গেলে দেখতে পায় ঘরের ডাবের সাথে রশি দিয়ে ঝুলে আছে অরণ্যের মৃতদেহ।

বড়াইগ্রাম থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আব্দুর রহিম জানান, খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নাটোর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।