ঈদে আনন্দ ভাগাভাগি করতে ধামইরহাটের দু’টি স্পট বেঁছে নিয়েছে ভ্রমন পিপাসুরা

প্রকাশিত: ১০:২৮ অপরাহ্ণ, মে ৬, ২০২২

মাসুদ সরকার, ধামইরহাট (নওগাঁ) প্রতিনিধি।।
ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করে নিতে শিশু কিশোর থেকে শুরু করে সব বয়সের পর্যটকদের পদচারণায় মুখর নওগাঁর সর্ব বৃহৎ ধামইরহাটের আলতাদিঘী জাতীয় উদ্যান ও ২শ বছরের পুরনো প্রকৃতিক ভাবে গড়ে উঠা শাল বন। ঈদের দিন থেকে শুরু আজ পর্যন্ত হাজার হাজার ভ্রমন পিপাসুরা আশে-পাশের জেলাগুলো থেকে আসছেন প্রকৃতির অপার সৌন্দর্য উপভোগ করতে।

ঈদের ছুটিতে অনেকেই প্রিয়জনকে সাথে নিয়ে চলে এসেছেন ইতিহাস আর ঐতিহ্যভরা ভরা আলতাদিঘী ও শাল বনের সুন্দর্য উপভোগ করতে। এখানে আশা পর্যটকদের নিরাপত্তা বিধানে সচেষ্ট ফরেস্ট পুলিশ ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সদস্যরাও।

অন্যদিকে ঈদকে ঘিরে উপজেলার শিমুলতলী আত্রাই নদির উপর নির্মাণা হজরত তকি উদ্দিন আরাবি সেতু ও আশ-পার্শের ফরেষ্টের সৃজিত বাগান ও ভারত থেকে বয়ে আশা প্রকৃতির খিয়াল খুশি মতো একি বেকিয়ে শিমুলতলী গর্ভ ভেদ করে বাংলাদেশে প্রবেশ করা আত্রাই নদীর সুন্দর্য উপভোগ করতে দর্শনার্থীর ভিড় চোখে পড়ার মতো। পা ফেলার মতো জায়গা নেই বললেই চলে। সেতু দেখার জন্য অনেকেই নদী পথে বাহারী রংগে নৌকা সেজে সাউন্ড বক্স লাগিয়ে নাচে-গানে মেতে রয়েছে। এক কথায় জনপ্রিয় মানুষের পদচারণায় মুখরিত এখন ধামইরহাটের দুটি স্থান।

বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, দর্শনার্থী ও ভ্রমন পিপাসুদের ভীড় চোখে পড়ার মতো। কেউ এসেছেন বন্ধুদের সঙ্গে দল বেঁধে, কেউবা পরিবারের সদস্যদের নিয়ে। পরিবার-পরিজন, আত্মীয়-স্বজন, বন্ধু-বান্ধব নিয়ে ঘোরাঘুরি আর আনন্দের মধ্য দিয়েই যেন ভাগাভাগি করছেন ঈদের আনন্দ। সেই সুযোগে বিভিন্ন দোকানী পসড়া সাজিয়ে রেখেছে ছোট বাচ্চাদের খেলনা, মুখ রোচক খাবারসহ ইত্যাদি সাংসারিক ছোট খাট জিনিস পত্র।