শ্রেণিকক্ষ থেকে ডেকে মাদ্রাসা শিক্ষককে মারধর

প্রকাশিত: ১২:১৯ পূর্বাহ্ণ, এপ্রিল ২২, ২০২২

পিরোজপুর প্রতিনিধিঃ
পিরোজপুরের নাজিরপুরে শ্রেণিকক্ষ থেকে ডেকে নিয়ে এক শিক্ষককে মারধরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। বুধবার দুপুরে পিরোজপুর জেলার নাজিরপুর উপজেলার দীর্ঘা ইউনিয়নের লেবুজিলবুনিয়া ফাজিল মাদ্রাসায় এই ঘটনা ঘটেছে। মারধরের শিকার আহত শিক্ষক মো. বদিউজ্জামান লেবুজিলবুনিয়া ফাজিল মাদ্রাসার আরবি বিভাগের শিক্ষক।

শিক্ষককে মারধরের প্রতিবাদে ওই মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল করে ও হামলাকারীদের একটি মোটরসাইকেল ভাঙচুর করে। পরে থানা-পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

শিক্ষককে হামলাকারীরা দীর্ঘা ইউনিয়নের ঝিলবুনিয়া গ্রামের মো. শরিফুল ইসলাম ও তাঁর ছোট ভাই রফিকুল ইসলাম বলে অভিযোগ ভুক্তভোগী শিক্ষকের।

হামলায় আহত শিক্ষক মো. বদিউজ্জামান ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ওই শিক্ষক শ্রেণি কক্ষে ক্লাস নিচ্ছিলেন। এ সময় শরিফুল ও তাঁর ভাই রফিকুল তাকে ক্লাস থেকে ডেকে নিয়ে মারধর করেন। রফিকুল পটুয়াখালীর লেবুখালী সেনা ক্যাম্পে চাকরিরত।

দীর্ঘা ইউপি চেয়ারম্যান আশুতোষ ব্যাপারী বলেন, বিষয়টি নারীঘটিত বলে জানতে পেরেছি। বিষয় টি মিমাংসার চেষ্টা করা হচ্ছে৷

এ ব্যাপারে বৈঠাকাটা ফাঁড়ি পুলিশের ইন্সপেক্টর মো. আউয়াল বলেন, খবর শুনে সেখানে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয় । বিষয়টি স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আশুতোষ ব্যাপারী মীমাংসার উদ্যোগ নিয়েছেন। তার পরও কোনো অভিযোগ পেলে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ওই মাদ্রাসার ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি সাবেক শিক্ষক মো. মোজাম্মেল হোসেন বলেন, শিক্ষক বদিউজ্জামানেরও কিছু অপরাধ রয়েছে বলে মনে হয়। মিমাংসার চেষ্টা চলছে৷

এ ব্যাপারে নাজিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হুমায়ুন কবির আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে জানান, বিষয়টি শুনে সেখানে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। শুনেছি স্থানীয়ভাবে বিষয়টি মিটমাট করে দেওয়া হয়েছে।