বিএসটিআই’র অভিযান, নকল ও অনুমোদনহীন লাচ্ছা সেমাই, ভোজ্য তেল ও মুড়ি কারখানাকে জরিমানা

প্রকাশিত: ১২:১৬ পূর্বাহ্ণ, এপ্রিল ২০, ২০২২

আব্দল্লাহ আল আমিন, রংপুর জেলা প্রতিনিধি।।
বিএসটিআই’র অভিযানে নকল ও অনুমোদনহীন লাচ্ছা সেমাই, ভোজ্য তেল ও মুড়ি কারখানাকে ৬৭,০০০/- জরিমানা। খাদ্য দ্রব্য ও পণ্যসামগ্রীতে ভেজাল রোধ এবং ওজন ও পরিমাপে সঠিকতা নিশ্চিত করণের লক্ষ্যে বিএসটিআই’র নিয়মিত কার্যক্রমের অংশ হিসেবে ১৮ এপ্রিল দুপুর হতে সন্ধ্যা পর্যন্ত বিএসটিআই বিভাগীয় কার্যালয়, রংপুর-এর উদ্যোগে পঞ্চগড় ও গাইবান্ধা জেলা সদরের বিভিন্ন এলাকায় জেলা প্রশাসনের সহায়তায় মোবাইল কোর্টের অভিযান পরিচালনা করা হয়। পঞ্চগড়ে অভিযান পরিচালনাকালে পণ্যের মান সনদ গ্রহণ না করে ভোজ্য তেল পাম অলিন পণ্যের বোতলে অবৈধভাবে মানচিহ্ন ব্যবহার করার অপরাধে “বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ডস এন্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউশন আইন, ২০১৮” এর সংশ্লিষ্ট ধারায় (১) মেসার্স ইসলাম এন্টারপ্রাইজ, রাজনগর, সদর, পঞ্চগড় প্রতিষ্ঠানকে ২৫,০০০/- , (২) লাচ্ছা সেমাই উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান জান্নাত এন্টারপ্রাইজ, তালমা, সদর, পঞ্চগড় প্রতিষ্ঠানকে ২৫,০০০/- ও (৩) মেসার্স গ্রাম বাংলার মুড়ির মিল (পণ্য-মুড়ি) প্রতিষ্ঠানকে ভোক্তা অধিকার অধিকার সংরক্ষণ আইনে ২,০০০/- জরিমানাসহ সর্বমোট সর্বমোট ৫২,০০০/- জরিমানা করা হয়। উক্ত অভিযান পরিচালনা করেন বিজ্ঞ এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ মনোয়ার হোসেন ও মোঃ আব্দুল আল মামুন, জেলা প্রশাসকের কার্যালয়, পঞ্চগড়। আদালতকে সহায়তা করেন বিএসটিআই বিভাগীয় কার্যালয়, রংপুর-এর ফিল্ড অফিসার (সিএম) জনাব মোঃ মেসবাহ-উল-হাসান ও পরিদর্শক জনাব মিঠুন কবিরাজ।

অপরদিকে মোবাইল কোর্ট গাইবান্ধা জেলা সদরের বিভিন্ন এলাকায় জেলা প্রশাসনের সহায়তায় পরিচালনা করা হয়। অভিযান পরিচালনাকালে পণ্যের মান সনদ গ্রহণ না করে লাচ্ছা সেমাই পণ্য উৎপাদন ও বিক্রয়-বিতরণ করার অপরাধে “বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ডস এন্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউশন আইন, ২০১৮” এর সংশ্লিষ্ট ধারায় (১) মেসার্স নিউ বিসমিল্লাহ ফুড এন্ড চানাচুর, কুটিপাড়া, সদর, গাইবান্ধা প্রতিষ্ঠানকে ১০,০০০/-, (২) প্যাকেট ও লেবেল বিহীন লাচ্ছা সেমাই উৎপাদন করার অপরাধে আসাদুলের লাচ্ছা সেমাই ফ্যাক্টরী, কুটিপাড়া, সদর, গাইবান্ধাকে ভোক্তা অধিকার অধিকার সংরক্ষণ আইনে ৫,০০০/- জরিমানাসহ সর্বমোট সর্বমোট ১৫,০০০/- জরিমানা করা হয়। উক্ত অভিযান পরিচালনা করেন বিজ্ঞ এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট এস এম ফয়েজ উদ্দিন ও মোঃ রেজাউল ইসলাম, জেলা প্রশাসকের কার্যালয়, গাইবান্ধা। আদালতকে সহায়তা করেন বিএসটিআই বিভাগীয় কার্যালয়, রংপুর-এর ফিল্ড অফিসার (সিএম) জনাব মোঃ দেলোয়ার হোসেন।

রংপুর বিভাগীয় অফিস প্রধান প্রকৌশলী মোঃ আব্দুর রশিদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আগামীতেও জেলা প্রশাসন ও জেলা পুলিশের সহায়তায় বিএসটিআই’র এরূপ মোবাইল কোর্টের অভিযান চলমান থাকবে।