সার্ভার জটিলতায় সিটি করপোরেশনের জন্মনিবন্ধন সংশোধনে কাজে ভোগান্তি

প্রকাশিত: ১১:০৭ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১২, ২০২১

 

স্টাফ রিপোর্টারঃ সার্ভার জটিলতায় সিটি করপোরেশন থেকে নতুন জন্মনিবন্ধন ও সংশোধন সহ ইংরেজীতে জন্মসনদ পেতে নগরবাসীর ভোগান্তি বেড়ে গেছে।

আজকাল স্কুলে ভর্তি সহ প্রায় সব কাজে জন্মনিবন্ধন একটি প্রয়োজনীয় কাগজ। অনেক সময় পিতা মাতার ভুলে ছেলেকে স্কুলে ভর্তি করাতে গেলে জন্মনিবন্ধন চাওয়া হয়। তখন দৌড়াদৌড়ি করে সিটি করপোরেশনে গেলে তাদের চেষ্টা থাকে নগরবাসীকে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব জন্মনিবন্ধন দেবার চেষ্টা করেন।

তবে প্রায়ই সার্ভার জটিলতার জন্য নাগরিকদের ভোগান্তি পোহাতে হয়।সবচেয়ে বেশী ভোগান্তি হয়, ছোট বাচ্চাদের যারা চিকিৎসার জন্য দেশের বাইরে যেতে হলে। তবে সিটি করপোরেশনের আগে পৌরসভার সময় করা জন্মনিবন্ধনধারীদের জন্য । কারণ এ্যামবেসী গুলো বাংলায় করা জন্মনিবন্ধন গ্রহণ করে না। তাদের জন্য ইংরেজী জন্মনিবন্ধন করতে হয়। বাংলা থেকে ইংরেজী জন্মনিবন্ধন করতে গেলে, আবার নতুন করে বাবা –মার জন্মনিবন্ধন এবং তা ডিডিএলজির অনুমোদনের জন্য পাঠানো হয়। পৌরসভা আমলে করা জন্মনিবন্ধন হালনাগাদ করে ডিডিএলজির অফিসে পাঠানো হয়। ওখানে থেকে ভেরিফিকেশন শেষ করে পরে আবার সিটি করপোরেশনের জোনাল অফিসে পাঠানো হয়।
তবে এসব কাজ সহজ না হওয়ায়, দৌড়াদৌড়ি করে কাজ শেষ করলে জোনাল অফিসে এলে দেখা যায় সার্ভার কানেকশন নেই।

এই সার্ভার কানেকশন না পাওয়া পর্যন্ত সংশোধিত কাগজ প্রিন্ট হবে না। শিক্ষার্থীদের ইউনিক আইডি কার্যক্রম চলছে সেখানে শিক্ষার্থীর অনলাইন জন্ম নিবন্ধন অবশ্যই থাকতে হবে। ষষ্ঠ থেকে দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত সকল শিক্ষার্থী এই জন্ম নিবন্ধন করতে হচ্ছে সেটি আমাদের বড়দের ন্যাশনাল আইডি কার্ডের মতই ভর্তি সহ বিভিন্ন কাজের দরকার পড়বে।

আমাদের প্রত্যাশা থাকবে সিটি মেয়র ঢাকা সেন্ট্রাল সার্ভারের সাথে যোগাযোগ করে সার্ভার জটিলতা নিরসনে উদ্যোগ নিয়ে নগরবাসীর ভোগান্তি লাঘবে সচেষ্ট হবেন।