ভাষা সৈনিক মকছুদ আহমেদ শান্তি সম্মাননা পুরস্কারে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানালো রাঙ্গামাটির সাংবাদিক সমাজ

প্রকাশিত: ৮:০৫ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১০, ২০২১

এম আজিজুল ইসলাম, রাঙ্গামাটি জেলা প্রতিনিধি।।

পাহাড়ের সংসপ্তক, চারণ সাংবাদিক এ কে এম মকছুদ আহমেদ ভাষা সৈনিক হিসেবে শান্তি সম্মননায় ভূষিত হওয়ায় তাকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানিয়েছে রাঙামাটির সাংবাদিক সমাজ।

রোববার দৈনিক গিরিদর্পণ সম্পাদক মকছুদ আহমেদকে তাঁর কার্যালয়ে এই শুভেচ্ছা জানায় সাংবাদিক প্রতিনিধি দল।

রাজধানীর শিশু কল্যাণ পরিষদ ভিআইপি হলে শনিবার (৯ অক্টোবর) এক জাকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে গিরিদর্পণ সম্পাদক একেএম মকছুদ আহমেদ কে এই শান্তি সম্মাননা প্রদান করে এশিয়া ছিন্নমূল মানবাধিকার বাস্তবায়ন ফাউন্ডেশন।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বছর উদযাপন ও ওই সংগঠনটির দুই যুগ পূর্তি উপলক্ষে সারাদেশের মোট ১০জন গুণী ব্যক্তিত্বকে নানা ক্ষেত্রে অবদানের জন্য সম্মাননা প্রদান করা হয়।

সম্মাননা অনুষ্ঠানে দৈনিক ইত্তেফাক এর রাঙামাটি জেলা প্রতিনিধি, পার্বত্য অঞ্চলের সর্বপ্রথম সংবাদপত্র বনভূমি ও দৈনিক গিরিদর্পণ সম্পাদক, ভাষা সৈনিক আলহাজ্ব একেএম মকছুদ আহমেদকে একই সময়ে সংবর্ধনা প্রদানের পাশাপাশি শান্তি সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। পাহাড়ের মানুষের পক্ষে এই বিরল সম্মান অর্জন করায় রোববার তাঁর কার্যালয়ে গিয়ে ফুলেল শুভেচ্ছা জানায় সাংবাদিক প্রতিনিধিবৃন্দ। রাঙামাটি প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও দৈনিক রাঙামাটি সম্পাদক আনোয়ার আল হক এর নেতৃত্বে এই প্রতিনিধি দলে ছিলেন সিএইচটি টাইমসের নির্বাহী সম্পাদক ও এশিয়ান টেলিভিশনের রাঙামাটি প্রতিনিধি আলমগীর মানিক, হিল রিপোর্ট টুয়েন্টি ফোর ডটনেট এর সম্পাদক ও বাংলা নিউজের রাঙামাটি প্রতিনিধি মঈন উদ্দীন বাপ্পীসহ অন্যান্য সাংবাদিকবৃন্দ।

সাংবাদিকগণ এ সময় পাহাড়ের সংসপ্তক একেএম মকছুদ আহমেদ এর দীর্ঘায়ু এবং উত্তরোত্তর সমৃদ্ধি কামনা করে বলেন, পিছিয়ে পড়া অঞ্চল পার্বত্য তিন জেলার সমাজ, সংষ্কৃতি ও ভাষার উত্তরণে আজীবন নিরলস এবং নিঃস্বার্থভাবে কাজ করে যাওয়া মকছুদ আহমেদকে পাহাড়ের মানুষ অনন্তকাল কাল মনে রাখবে।

একসময়ের ঝঞ্ঝা বিক্ষুব্দ পার্বত্য চট্টগ্রামে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে নানা আঙ্গিকের প্রকাশনার মাধ্যমে মকছুদ আহমেদ শান্তি প্রক্রিয়ার প্রেক্ষাপট তৈরি করেছিলেন বলেই আজ পাহাড়ে শান্তির বাতাবরণ বইছে। শুধু সমাজ বিনির্মান ও শান্তির জন্য কাজ করেই মকছুদ আহমেদ থেমে থাকেননি; এ এলাকার সাহিত্য সংস্কৃতির উত্তরণেও তিনি অসামান্য অবদান রেখে চলেছেন। তাই তিনি একুশে পদকের একজন অন্যতম দাবিদার।

নেতৃবৃন্দ এ বিষয়ে একুশে পদক বিষয়ক জাতীয় কমিটির সুবিবেচনা প্রসূত সিদ্ধান্ত কামনা করেন।